খালেদার মানহানির মামলার শুনানি পেছালো

বিএনপি চেয়ারপানসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মানহানির দুই মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানি পেছানো হয়েছে। পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করেছেন আগামী ১৪ মার্চ।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) কেরানীগঞ্জের নতুন কেন্দ্রীয় কারাগারে অস্থায়ীভাবে স্থাপিত আদালতের বিচারক আসাদুজ্জামান নতুন এ দিন ধার্য করেন।

আজকের শুনানিতে খালেদা জিয়ার হাজির হওয়ার কথা থাকলেও অসুস্থতার কারণে তিনি হাজির হতে পারেনি। তবে বিএনপি চেয়ারপারসনের পক্ষে দুই মামলার শুনানি পেছানোর আবেদন করেন তার আইনজীবী।

আদালত আবেদনটি মঞ্জুর করে আগামী ১৪ মার্চ শুনানির দিন ধার্য করেন। মহান মুক্তিযুদ্ধকে কলঙ্কিত করা ও ভুয়া জন্মদিন পালনের অভিযোগে ২০১৬ সালে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুইটি মামলা দায়ের করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৩০ আগস্ট ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী জহিরুল ইসলাম ঢাকা মহানগর হাকিমের আদালতে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ভুয়া জন্মদিন পালনের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, খালেদা জিয়ার একাধিক জন্মদিন পালনের সংবাদ ১৯৯৭ সালের ১৯ ও ২২ আগস্ট দু’টি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে—খালেদা জিয়ার এসএসসি পরীক্ষার মার্কশিট অনুযায়ী, তার জন্ম তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর ১৯৪৬ সাল। ১৯৯১ সালে তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকার সময় একটি দৈনিকে তার জীবনী নিয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জন্মদিন ১৯ আগস্ট ১৯৪৫ সাল উল্লেখ করা হয়েছে। তার বিয়ের কাবিনে জন্মদিন ৪ আগস্ট ১৯৪৪ সাল লেখা হয়েছে। সর্বশেষ ১৯৯৬ সাল থেকে ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকীর জাতীয় শোক দিবসে আনন্দ উৎসব করে জন্ম দিন পালন করে আসছেন তিনি।

বার্তাবাজার/ই.এইচ.এম

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর