আজ শুক্রবার দুপুর ২:৩৩, ২১শে জুলাই, ২০১৭ ইং, ৬ই শ্রাবণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৬শে শাওয়াল, ১৪৩৮ হিজরী

বেকার ওয়ার্নার-স্মিথরা! কাল মিটিং

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : জুলাই ১, ২০১৭ , ৯:৫৭ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : খেলাধুলা
পোস্টটি শেয়ার করুন

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে চুক্তি নবায়ন না হওয়ায় ভালোই বিপাকে পড়তে যাচ্ছে দেশটির খেলোয়াড়রা। চুক্তি নবায়নের শেষ দিনেও দেশটির ক্রিকেটবোর্ড ও খেলোয়াড়দের সংগঠনের মধ্যে সমঝোতা না হওয়ায় ক্ষতির মুখে পড়তে যাচ্ছে উভয় পক্ষই।

দেশটির স্থানীয় গণমাধ্যম বলছে, চুক্তি নবায়ন না হলে পরেররদিন অর্থাৎ শনিবার ভোর থেকেই কার্যত বেকার হয়ে যাবেন ওয়ার্নার-স্মিথরা।

এদিকে খেলোয়াড় ও বোর্ডের মধ্যে সৃষ্ট সমস্যায় ক্ষতির মুখে পড়তে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর, জাতীয় দলের বাংলাদেশ সফর এবং সামনের অ্যাশেজ সিরিজ।

এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়তে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর। কারণ কিছুদিনের মধ্যেই এটি হওয়ার কথা ছিল।  ইতিমধ্যে সিরিজের পূর্ণ প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড। দুটি চারদিনের ম্যাচের পর এই সফরে একটি ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ হওয়ার কথা, যাতে যুক্ত হবে ভারতের ‘এ’ দল।

আর সোমবার ছিল অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলে ডাক পাওয়া ক্রিকেটারদের রিপোর্টের তারিখ। কিন্তু ‘এ’ দলের অধিনায়ক উসমান খাজাসহ আরও অনেক ক্রিকেটার ছিলেন আগের চুক্তির অধীনে।

ক্রিকেটারদের চুক্তি নবায়নের জটিলতায় অনিশ্চয়তায় পড়তে যাচ্ছে বাংলাদেশ সফরও। আগস্টে এই সফর হওয়ার কথা থাকলেও যে অবস্থা চলছে তাতে বাংলাদেশ সফরে নাও আসতে পারেন স্মিথ বাহিনী।

এদিকে বোর্ড চুক্তি নবায়ন না করলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বদলে ঘরোয়া লিগগুলোতে খেলবেন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটাররা। যার মধ্যে আইপিএল ছাড়াও আছে ক্যারিবীয় লিগ সিপিএল বা দক্ষিণ আফ্রিকা-ইংল্যান্ডের টি২০ লিগ।

তবে সিএ নিয়ম করে দিয়েছে, বোর্ডের অনুমতি ছাড়া এমনকি কোনো অগুরুত্বপূর্ণ প্রদর্শনী ম্যাচ খেললেও ক্রিকেটারদের নিষিদ্ধ করা হবে।

এদিকে, ডামাডোল অব্যহত অস্ট্রেলিয় ক্রিকেট দলে। শনিবার থেকে আইনত স্মিথদের সঙ্গে কোনও সম্পর্ক থাকবে না সিএ-র, যা অস্ট্রেলিয় ক্রিকেট ইতিহাসে নজীরবিহীন ঘটনা।

সিএ-এর এই খামখেয়ালি সিদ্ধান্তের ফলে সমস্যায় পড়তে চলেছে ১৩৫ বছরের ঐতিহ্যশালী অ্যাসেজ টুর্নামেন্ট। চলতি বছরের নভেম্বরের ২৩ তারিখ থেকে শুরু হওয়ার কথা অ্যাসেজের।

তবে, চুক্তি না করলেও  স্মিথ-মার্শদের জন্য বিকল্প পরিকল্পনা তৈরি করে ফেলেছে ডেভিড পিভির অ্যান্ড কোম্পানি। শুক্রবার সিএ-র এক কর্মকর্তা জানান, পুরনো চুক্তি নবিকরণ না হলেও, নতুন এক চুক্তির প্রস্তাব দেওয়া হবে স্মিথদের। ক্রিকেটারদের পরিবার এবং ব্যক্তিগত বিষয়ে ভারসাম্য রেখেই এই চুক্তির প্রস্তাব দেওয়া হবে দেশের প্রথম সারির ক্রিকেটারদের।

সূত্রের খবর, সিএ-র দেওয়া চুক্তির পর্যালোচনা করতে আগামী রবিবার সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে আলোচনায় বসবেন অস্ট্রেলিয়া।

উল্লেখ্য, এর আগেও ভিন্ন এক চুক্তির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারদের যা ক্রিকেটারদের স্বার্থ বিরোধী বলে বাতিল করে দেয় অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন (এসিএ)।

এখন দেখার নতুন এই চুক্তিতে সায় দিয়ে, অস্ট্রেলিয় ক্রিকেটে দীর্ঘদিন ধরে চলা বোর্ড-ক্রিকেটার বিবাদের মিমাংসা হয় কি না!

Add Space