আজ মঙ্গলবার সকাল ৯:৪৮, ১৭ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং, ২রা কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৬শে মুহাররম, ১৪৩৯ হিজরী

‘আমি চাইলে কাঁদতে পারতাম, কিন্তু চোখে জল আসত না’

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : মার্চ ৯, ২০১৭ , ৬:৫৭ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : খেলাধুলা
পোস্টটি শেয়ার করুন

অবিশ্বাস্য প্রত্যাবর্তনে পিএসজিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে বার্সেলোনা। শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ৪-০ গোলে হারের পরও ঘরের মাঠে ৬-১ ব্যবধানের জয়ে ইতিহাস গড়েছে কাতালানরা। চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে নকআউট পর্বে প্রথম লেগে চার গোলের ঘাটতি পুষিয়ে পরের রাউন্ডে ওঠার ঘটনা এটাই প্রথম।

ন্যু ক্যাম্পে ইতিহাস গড়ার পর সংবাদ সম্মেলনেও বেশ উচ্ছ্বসিত দেখা গেছে বার্সেলোনার কোচ লুইস এনরিককে। শ্বাসরুদ্ধকর এই ম্যাচটি স্মরনীয় হয়ে থাকবে বলে জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে এনরিক বলেন, ‘এটা রোমাঞ্চের চেয়ে কিছুটা বেশি ছিল। এমন অভিজ্ঞতা আমার আগে কখনো হয়নি। এই ধরনের ম্যাচ কথায় ব্যাখ্যা করাটা কঠিন। পাগলাটে লোকদের জন্য এটা অনন্য একটি খেলা। ন্যু ক্যাম্পে উপস্থিত থাকা কোনো শিশুও এই ম্যাচটি কখনো ভুলবে না। ’

শক্তিশালী পিএসজির বিপক্ষে এমন দুর্দান্ত জয়ের পর কেঁদেছেন কি না, জানতে চাইলে বার্সা কোচ বলেন, ‘এটা অসাধারণ এক অনুভূতি ছিল। আমি কাঁদিনি, আমি চাইলে কাঁদতে পারতাম, কিন্তু চোখে জল আসত না। তবে যারা এ ম্যাচ দেখে কেঁদেছিল, আমি সেগুলো বেশ উপভোগ করছি। তরুণ সার্জিও রবার্তোর প্রতি আমি খুবই সন্তুষ্ট। তার প্রতি আমার বেশ আস্থা তৈরি হয়েছে। ’

আজীবন মনে রাখার মতো এই জয় বার্সা সমর্থকদের উৎসর্গ করেছেন এনরিক, ‘বার্সা সমর্থকদের আমি এ জয় উৎসর্গ করতে চাই। বিশেষ করে তাদের জন্য যারা ৪-০ গোলে পিছিয়ে থাকার পরও আমাদের সমর্থন দিয়েছেন। ভ্যালেন্টাইন ডেতে প্যারিসে আমরা হেরেছিলাম। কিন্তু আজকে (বুধবার) ঘরের মাঠে আমরা সবকিছুই ফিরে পেয়েছি। বিস্ময়কর এই খেলাটি সর্বদাই আপনাকে প্রতিশোধ নেওয়ার সুযোগ দেবে। ’