আজ শুক্রবার রাত ২:২১, ২৪শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং, ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় রহস্যজনক অগ্নিকান্ড তদন্ত কমিটি গঠন

নিউজ ডেস্ক | বার্তা বাজার .কম
আপডেট : মার্চ ৯, ২০১৭ , ৭:৩৭ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রংপুর,সমগ্র বাংলা
পোস্টটি শেয়ার করুন

নীলফামারী প্রতিনিধিঃ  দেশের সর্ববৃহৎ সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার অভ্যান্তরের দার্জিলিং গেট এলাকার জঙ্গলে রহস্যজনক এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা নিয়ে জেলায় চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে। বুধবার দুপুরের এ ঘটনায় ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট দুই ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনলে কারখানাটি বড় ধরনের ক্ষতির হাত হতে রক্ষা পায় কারখানাটি। এ ঘটনায় রেলওয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। এ ছাড়া সৈয়দপুর জিআরপি থানায় এ ব্যাপারে একটি জিডি করা হয়।
রেলওয়ে সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি কয়েক কোটি টাকা ব্যয়ে সৈয়দপুর রেলকারখার আধুনিকায়ন করা হয়। কারখানাটি সংরক্ষিত এলাকা। এখানে বহিরাগত কেউ সহজে প্রবেশ করতে পারেনা। এ অবস্থায় কারখানার অভ্যন্তরে পেইন্ট শপের উত্তর অংশে ২৪ নম্বর দার্জিলিং গেট সংলগ্ন এলাকার জঙ্গলে হঠাৎ করে দুপুরে আগুন জ্বলে উঠে। বাতাসের সঙ্গে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে থাকে। কর্মরত রেলকারখানার শ্রমিকরা তাৎক্ষনিকভাবে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়। ফায়ার সার্ভিস আসার আগেই জঙ্গল থেকে জঙ্গলে আগুন ছড়িয়ে পড়তে থাকে। ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট ছুটে এসে দুই ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এ সময় রক্ষা পায় বেশ কিছু রেলকোচ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন কারখানা শ্রমিকের ধারনা কেই ইচ্ছেকৃতভাবে আগুন লাগিয়ে দিয়ে রেলকারখানাটিকে ধ্বংস করতে চেয়েছিল। এটি সংরক্ষিত এলাকা তাই সেখানে সবাই প্রবেশ করার কথা না। এ ব্যাপারে সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার বিভাগীয় তত্বাবধায়ক (ডিএস) কুদরত ই খুদা সাংবদিকদের জানান, আগুনের সূত্রপাত কিভাবে হয়েছে তা আমি জানিনা। এটি উদঘাটনে কারখানার আর,এম,বির সহকারী কমান্ডেট এমদাদুল হককে আহবায়ক করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করবে। সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মাহমুদুল হাসান জানান, প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে কারখানার এই জঙ্গলে কেউ সিগারেটের আগুনে এই অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হতে পারে। সৈয়দপুর জিআরপি থানার ওসি এ, কে, এম লুৎফর রহমান জানান এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে একটি জিডি করেছেন। জিডি নং-২৬০।