১৭, ডিসেম্বর, ২০১৮, সোমবার | | ৮ রবিউস সানি ১৪৪০

সাভারে ডাকাতি, বাধা দেওয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণ করেছে ডাকাতরা

আপডেট: জুলাই ৮, ২০১৮

সাভারে ডাকাতি, বাধা দেওয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণ করেছে ডাকাতরা

সাভারে একটি শ্রমিক কলোনির চারটি পরিবারে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বাধা দেওয়ায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করেছে ডাকাতরা। পাশাপাশি আরেকজন পোশাক শ্রমিককেও ধর্ষণের চেষ্টা করেছে তারা।

আজ রোববার ভোর রাত ৪টার দিকে সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের রাজফুলবাড়িয়ার রাজাঘাট এলাকায় জনৈক মাহিনুর ইসলামের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় আটজনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে ডাকাতরা। একই সঙ্গে ওই চারটি পরিবারের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

ডাকাতি হওয়া ওই পরিবারের সদস্যরা জানায়, রাজাঘাট এলাকায় মাহিনুর ইসলামের ভাড়া দেওয়া একটি শ্রমিক কলোনিতে বসবাস করে আসছিলো কয়েকটি পরিবার। ভোর রাতে ১৫ সদস্যের একদল ডাকাত প্রবেশ করে চারটি পরিবারের পুরুষদের সবাইকে একটি ঘরে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত পা বেধে রাখে। ডাকাতরা তাদের থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা, কয়েক ভরি স্বর্ণালঙ্কার,তিনটি অটোরিকশা, কয়েকটি টেলিভিশন, বেশ কয়েকটি মোবাইল ফোনসহ প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে।

এ সময় বাধা দেওয়ায় ডাকাতরা এক গৃহবধূকে (১৯) ধর্ষণ করে ও আরেক পোশাক শ্রমিককে (২৭) ধর্ষণের চেষ্টা করে। পরে চলে যাওয়ার সময় ডাকাতরা ওই চারটি পরিবারের সোহাগ সরদার (২৫), ভোলা মিয়া (৩০), নাজমুল বেপারী (৫০), শহিদুল্লাহসহ আটজনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।

পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে একটি ওষুধ ফার্মেসিতে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা দিয়েছে। এ ঘটনায় ওই শ্রমিক কলোনির আশেপাশের বাড়িতে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে বলেও জানান ডাকাতি হওয়া ওই পরিবারের সদস্যরা।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহসিনুল কাদির জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।