নুসরাত হত্যা: অভিযুক্ত শিক্ষকদ্বয়ের এমপিও স্থগিত

ফেনীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত হত্যা মামলায় অভিযুক্ত অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলা ও প্রভাষক আফসার উদ্দীনের এমপিও স্থগিত করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

রোববার (২৮ এপ্রিল) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী এ সংক্রান্ত এক নথি অনুমোদন দেয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওই নথিতে জানানো হয়, ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে শ্লীলতাহানী ও আগুনে পুড়িয়ে হত্যা মামলায় অভিযুক্ত মাদ্রাসার অধ্যক্ষ এস এম সিরাজ উদদৌলা (ইনডেক্স নং ৩০৪১১১) এর এমপিও স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া নুসরাতকে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার সাথে জড়িত একই মাদ্রাসার ইংরেজি বিষয়ের প্রভাষক আফসার উদ্দীন (ইনডেক্স নং ২০৩০৫০৮) এর এমপিও স্থগিত করা হয়েছে।

ওই নথিতে আরো জানানো হয়, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (মাদ্রাসা) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা ২০১৮ এর অনুচ্ছেদ-১৮ এর উপানুচ্ছেদ ১৮.১.১৮.২ এর আলোকে তাদের এমপিও স্থগিত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, নিহত নুসরাত সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী ছিলেন। ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে তিনি যৌন নিপীড়নের অভিযোগ করেন। নুসরাতের মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে ২৭ মার্চ সোনাগাজী থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর অধ্যক্ষকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মামলা তুলে নিতে বিভিন্নভাবে নুসরাতের পরিবারকে হুমকি দেওয়া হয়।

৬ এপ্রিল সকাল ৯টার দিকে আলিম পর্যায়ের আরবি প্রথমপত্রের পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে যান নুসরাত। এ সময় তাকে কৌশলে পাশের বহুতল ভবনের ছাদে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেওয়া হয়। গত ১০ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯টায় ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নুসরাত মারা যান। এ ঘটনায় নুসরাতের ভাইয়ের দায়ের করা মামলাটি তদন্ত করছে পিবিআই।

অধ্যাক্ষ সিরাজ উদদৌলা এবং প্রভাষক আফসার উদ্দীন বর্তমানে কারাগারে আছেন।

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর