করোনা ভাইরাস নিয়ে মানসিক চাপ কমানোর উপায়

দেশে দ্রুতই ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস। সারাদেশ এখনও সরকারিভাবে লকডাউন করা না হলেও মানুষজন খুবই কম বাইরে বের হচ্ছেন। ঢাকাসহ দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলোতে ইতোমধ্যেই লোক সমাগম কমে গেছে। বাইরে যান চলাচলও সীমিত। এর মাঝে বেশ কয়েকটা শহরে গনপরিবহন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

এমন ভীতিকর অবস্থার মাঝে যারা ঘরে থাকছেন তারাও ভয়ে ভয়ে সময় পার করছেন। কারন তাদের পরিবারেরই কেউ না কেউ কাজের জন্য বাইরে গিয়েছেন। কোথায় যাচ্ছে কি করছে তারা এবিষয়ে চিন্তা থেকে অনেকেই অসুস্থ হয়ে যেতে পারে।

জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক মেখলা সরকার জানান, ‘মানসিক চাপের বিষয়টি একেক জনের ভেতর একেকভাবে কাজ করে। যখন কোন সংকটের মধ্যে আমরা পড়ি, তাতে একেকজন মানুষ একেকভাবে প্রতিক্রিয়া দেখায়।”

আপনার মানসিক সমস্যার বিষয়টি কিভাবে বুঝবেন?

ডা. মেখলা সরকার জানান, অতিরিক্ত চিন্তা করলে বা মানসিক চাপে ভুগলে মানুষের মেজাজ খিটখিটে হয়ে ওঠে। যখন তখন রেগে উঠা বা অল্প কিছুতেই তারা অনেক বেশি উত্তেজনা প্রকাশ করে। কিছু মানুষের মধ্যে শারীরিক প্রতিক্রিয়া হতে পারে। যেমন বুক ধড়ফড় করতে পারে, মাথা ব্যথা করতে পারে, শ্বাস নিতে সমস্যা হতে পারে। শারীরিক আরও কিছু সমস্যা হতে পারে। অনেকের আবার ঘুমের সমস্যা্ব হতে পারে।

যেভাবে মানসিক চাপ কাটিয়ে ওঠা যেতে পারে:

সাইকোলজিস্ট অধ্যাপক মেখলা সরকা মানসিক চাপ বা উদ্বেগ কাটিয়ে ওঠার জন্য বেশ কয়েকটি পরামর্শ দিয়েছেন।

সমস্যাটি মেনে নেয়া

যে সমস্যা আপনি পড়েছেন সেটি থেকে মুক্তি পেতে হলে আপনার উচিত প্রথমেই সমস্যাটি মেনে নেয়া।
মেখলা সরকারে মতে, সমগ্র বিশ্বজুড়ে চলমান একটি সংকটের মধ্যে যে আমরা আছি, সেটা প্রথমেই মেনে নিতে হবে। একই সাথে ভাবতে হবে, শুধু আপনি একা না, প্রতিটা মানুষই সমস্যার ভেতর রয়েছে। দুঃসময় স্থায়ী হবে না। খুব দ্রুত তা কেটে যাবে।

শারীরিক দূরত্ব গড়ে তুলুন, তবে মানসিকভাবে কাছে থাকুন

করোনা থেকে বাঁচার জন্য সবার মাঝে দূরত্ব বজায় রাখার পরামর্শ দিয়েছেন ডাক্তাররা।

তবে অধ্যাপক মেখলা জানান, শারীরিকভাবে অবশ্যই দূরত্ব বজায় রাখতে হবে কিন্তু মানসিকভাবে নয়। সবার সঙ্গে টেলিফোনে, ম্যাসেঞ্জারে নিয়মিত কথা বলতে হবে। আগের মতই আন্তরিকতা প্রকাশ করতে হবে। তাহলে অন্যদের মধ্যেও একটা আস্থা তৈরি হবে যে, আমার পাশে কেউ রয়েছে।

পরিবারের সঙ্গে ভাল সময় কাটান

ব্যস্ততার কারণে পরিবারের সবার সাথে ভাল সময় কাটাতে পারেন না। এখন ঘরে থাকার সুযোগে সবার সাথে সুন্দর সময় বকাটান। সবাইকে নিয়ে কাটানো প্রতিটা মুহুর্ত উপভোগ করুন।

এ বিষয়ে অধ্যাপক সরকার বলছেন, মোবাইল, কম্পিউটারের স্ক্রীনে না তাকিয়ে পরিবারের দিকে তাকান। ফেসবুক থেকে বেরিয়ে পরিবারের সঙ্গে বাস্তব সময় কাটান। সবাইকে বুঝতে দিন যে, সবাই মিলে একটা সংকট মোকাবেলা করছেন।”


নির্ভরযোগ্য সূত্রের তথ্য গ্রহণ করুন

ভুলে ভরা গুজব বিশ্বাস না করে দেশের নির্ভরযোগ্য মাধ্যমগুলোর সংবাদ পড়ুন। নিজেকে চিন্তামুক্ত রাখুন।

মেখলা সরকার বলছেন, সারাক্ষণ এসব তথ্যের পেছনে ছুটে না বেরিয়ে নির্দিষ্ট একটা ঠিক করে নিয়ে তখন এসব তথ্যের খোঁজ করা যেতে পারে।


বার্তাবাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
এই বিভাগের আরো খবর