‘তিন মোড়ল’ নীতি নিয়ে ভারতের নতুন আবদার!

নিউজ ডেস্ক | বার্তাবাজার.কম

আপডেট: April 19, 2017 , 6:24 pm

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বহুল বিতর্কিত ‘তিন মোড়ল’ নীতি নিয়ে মাঠ গরম রাখছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। মঙ্গলবার দিল্লিতে অনুষ্ঠিত বিসিসিআইয়ের সাধারণ সভায় আইসিসি বরাবর একটি প্রস্তাবনা দেওয়ার বিষয়ে ঐক্যমত হয়েছে। আগামী জুনে লন্ডনে অনুষ্ঠিতব্য আইসিসির বার্ষিক সাধারণ সভা পর্যন্ত বিগ থ্রি নীতি অক্ষুণ্ন রাখার বিষয়ে আবদার করেছে তারা। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকেও সমর্থন আদায় করে নিয়েছে বিসিসিআই।

আগামী সপ্তাহে দুবাইয়ে আইসিসির বোর্ড মিটিংয়ে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার কথা ছিল। ঐ সভায় ভারতের প্রতিনিধিত্ব করবেন বিসিসিআইয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব অমিতাভ চৌধুরী। বিষয়টি সম্পর্কে বিসিসিআইয়ের একজন ঊর্ধ্বতন ব্যক্তি সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, “অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড এবং ভারতকে নিয়ে ‘বিগ থ্রি’ নীতি আগামী জুন পর্যন্ত চালু রাখতে আইসিসির কাছে প্রস্তাব পাঠানোর বিষয়ে সভায় সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমরা জুনের বার্ষিক সভার আগে একটি নতুন আর্থিক মডেল তৈরি করতে চাই যা লন্ডনের সেই সভায় উত্থাপন করা হবে। এই প্রস্তাবনায় ভারতের পাশাপাশি অন্যরাও লাভবান হবে। ”

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে পাস হওয়া ‘বিগ-থ্রি’ নীতিতে ২০১৫ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত আইসিসির সম্ভাব্য আয়ের ভাগ বণ্টনের একটা বর্ণনা দেওয়া হয়েছিল। তাতে বলা হয়েছিল, আগামী ৮ বছরে আইসিসির আয়ের ২৭.৪ শতাংশ পাবে বিসিসিআই, ইসিবি ও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ভাগ বাঁটোয়ারাটাও ছিল অদ্ভুত। অস্ট্রেলিয়া পাবে ২.৭ ভাগ অর্থ, যুক্তরাজ্যের ভাগে ৪.৪ ভাগ। আর ভারত একাই নেবে ২০.৩ ভাগ! যেখানে ক্রিকেটে মূল সদস্য আছে ১০টি। তাই বিষয়টি নিয়ে বাকী পূর্ণ সদস্য এবং সহযোগী সদস্যদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল। এরপর চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে আইসিসি সভায় এই নীতি বাতিল করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়।

এই সিদ্ধান্তের পরই ক্ষেপে যায় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। সিদ্ধান্ত আটকাতে বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কার সমর্থন জরুরি ছিল তাদের। কিন্তু শ্রীলঙ্কা এই বিষয়ে নীরবতা অবলম্বন করেছে। আর বিসিসিআই প্রতিনিধিদলের সঙ্গে চলতি মাসের শুরুর দিকে এক বৈঠকের পর বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন বলেছিলেন, ভারতীয় ক্রিকেটের ক্ষতি হয় এমন কোনো কাজ বাংলাদেশ করবে না।

বার্তাবাজার.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।