২৫, জুন, ২০১৮, সোমবার | | ১১ শাওয়াল ১৪৩৯

যে তিন কারণে ইউনাইটেড পছন্দ খালেদার

আপডেট: জুন ১২, ২০১৮

যে তিন কারণে ইউনাইটেড পছন্দ খালেদার

সম্প্রতি যে চারজন চিকিৎসক বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে দেখতে গিয়েছিলেন তাদের একজন অধ্যাপক সৈয়দ ওয়াহিদুর রহমান। তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরোলজিস্ট এবং খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের অন্যতম।

অধ্যাপক রহমান বলেন, খালেদা জিয়ার বেশ কিছু শারীরিক সমস্যা রয়েছে। এগুলোর মধ্যে – রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ অন্যতম। চিকিৎসক মি. রহমান বলেন, খালেদা জিয়ার প্রস্রাবে বারবার সংক্রমণ হচ্ছে, কিডনি দুর্বল হয়ে গেছে এবং রাতে জ্বর আসে।

তিনি আরও বলেন, ওনার কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা দরকার। যেমন ধরুন – এমআরআই করা দরকার। ওনার দুই হাঁটুতেই আর্টিফিশিয়াল প্রসথেসিস করা আছে যেটা নরমাল এমআরআই মেশিনে হবে না। এখানে সরকারি-বেসরকারি ব্যাপার না। বিষয় হচ্ছে পরীক্ষাগুলো এমন এক জায়গায় করতে হবে যাতে সবকিছু একসাথে করা যায়। বিএসএমএমইউতে ঐ ধরণের এমআরআই মেশিন নাই। এটা সমস্যা হবে।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া যেহেতু ইউনাইটেড হাসপাতালে অনেক আগে থেকেই চিকিৎসা করতেন। সেজন্য সেখানকার চিকিৎসকরা খালেদা জিয়ার যেমন পরিচিত, তেমনি পরিবেশেও পরিচিত।

চিকিৎসক অধ্যাপক রহমান বলেন, খালেদা জিয়া ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে চান দুটো কারণে।

প্রথমত: সে হাসপাতালের পরিবেশ এবং চিকিৎসকরা তার পরিচিত।

দ্বিতীয়ত: খালেদা জিয়ার প্রয়োজনীয় সকল পরীক্ষা-নিরীক্ষা সে হাসপাতালে একসাথে করা সম্ভব।

অন্যদিকে সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুর কবীর রিজভী বলেছেন, বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের কলেজ হাসপাতালের ( বিএসএমএমইউ) সকল চিকিৎসক দলবাজ। তার এই মন্তব্য থেকে এটা স্পষ্ট যে, বেগম জিয়া বিএসএমএমইউতে চিকিৎসা নিতে চাচ্ছেন না এর অন্যতম কারণ হচ্ছে স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তা। সেদিক থেকে তিনি সরাসরি সরকার কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত নয় এমন একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে চাইছেন।

উল্লেখ্য, বিএনপির কারাবন্দি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসা নিতে আগ্রহী নন, এ কথা জানিয়েছেন খোদ আইজি প্রিজনস বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ইফতেখার উদ্দিন।

তিনি বলেন, মঙ্গলবার বেলা ১১টার সময় খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাবার কথা ছিল। সম্পূর্ণ পরিকল্পনা আমরা গ্রহণ করেছিলাম। কিন্তু তিনি (খালেদা জিয়া) অনীহা প্রকাশ করেছেন। উনি বলেছেন, ইউনাইটেড হাসপাতাল ছাড়া অন্য কোথাও চিকিৎসা নেবেন না।

এদিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, কারাবন্দীদের বিশেষায়িত বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার অনেক রেকর্ড রয়েছে অতীতে। এটা নতুন কিছু নয়। তিনি এও বলেন, খালেদা জিয়াকে ইউনাইটেডে চিকিৎসার সকল খরচ বহন করবে বিএনপি।

সেইসঙ্গে খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দারও ইউনাইটেড হাসপাতালে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার আবেদন জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছেন।

তবে তার আবেদনকে অযৌক্তিক হিসেবে বর্ণনা করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল খালেদা জিয়াকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসার প্রস্তাব দিয়েছেন।