২১, নভেম্বর, ২০১৮, বুধবার | | ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

মাত্রাতিরিক্ত ঘুম প্রাণের ঝুঁকি বাড়ায়?

আপডেট: জুন ১১, ২০১৮

মাত্রাতিরিক্ত ঘুম প্রাণের ঝুঁকি বাড়ায়?

কর্মব্যস্তময় সপ্তাহের ছয়দিন কাটানোর পর এক দিন ছুটি পেয়ে কেউ আর ওই দিন বাহিরে যেতে চান না। অনেকেই বাড়িতে শুয়ে বসেই দিনের অধিকাংশ সময়টা কাটাতে চান। ছুটির এ দিনটিতে অনেকেই হয়তো ৫-৬ ঘণ্টার পরিবর্তে ৯-১০ ঘণ্টা ঘুমিয়েই কাটিয়ে দেন। কিন্তু এই অলসতা কি শরীরের জন্য ভাল? দিনে কত ঘণ্টা ঘুম উচিত?

বিশেষজ্ঞদের মতে, দিনে ৬ ঘণ্টা ঘুমই যথেষ্ট। কিন্তু দিনে যারা ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমান তাদের বিপদের আশঙ্কা অনেকটাই বেশি থাকে।

এ ব্যাপারে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, মাত্রাতিরিক্ত ঘুম মোটেই স্বাস্থ্যের জন্য ভাল নয়। উল্টো মারাত্মক ক্ষতিকর। বিশেষজ্ঞদের মতে, মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ফলে ডায়বেটিস এমনকি হার্টের নানা রোগের সম্ভাবনা বহু গুণ বেড়ে যায়।

সাম্প্রতিক সময়ের কয়েকটি গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, অতিরিক্ত ঘুম ধূমপান বা মদ্যপানের মতোই ক্ষতিকর।

সপ্তাহ শেষে এক দিন ছুটি পেলে অধিকাংশ মানুষই খাওয়া দাওয়া আর ঘুমের সময়ের কোনো ঠিক থাকে না। এমন অভ্যাস দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকলে তা বিপদ ডেকে আনতে পারে অনায়াসেই।

এ নিয়ে বেশ কয়েকটি মার্কিন গবেষণার রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ফলে অবসাদ, স্মৃতি বিস্মরণের সমস্যা, মনঃসংযোগের অভাব, হাইপারটেনশনের মতো সমস্যাগুলিও ক্রমশ বৃদ্ধি পায়। যারা হাঁটা-চলা কম করেন বা দিনের বেশিরভাগ সময় বসে কাটান তাদের বিপদের আশঙ্কা আরো বেশি।

তাই সুস্থ থাকতে হলে অলসতা দূর করুন। বিশেষ করে মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের অভ্যাস বর্জন করুন।