২৪, জুন, ২০১৮, রোববার | | ১০ শাওয়াল ১৪৩৯



  • নাইজেরিয়ার বিপক্ষে যে একাদশ নিয়ে মাঠ নামছে আর্জেন্টিনা!

    ফুটবল বিশ্বের হট ফেভারেটের তালিকায় থাকা আর্জেন্টিনা নেই তাদের পুরোনো ছন্দে। ইনজুরির কারণে সার্জিও রোমেরোও পরিবর্ততে গোলকিপার কাবালেরোর নামিয়ে বেশ বড় ধাক্কা পড়েছে আর্জেন্টাইন শিবিরে। এছাড়াও রয়েছে কোচ সাম্পাওলির করা নতুন ফরমেশন যার কারনে বিধ্বস্ত হতে হয়েছে ক্রোয়েশিয়ার কাছে।

    আর সকল পরিকল্পনাকে নতুন করে সাজিয়ে নতুন রণকৌশল তৈরি করে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে মাঠে নাববে আর্জেন্টিনা। তাই দলে জায়গা পায়নি ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে যারা খেলেছেন তাদের পাঁচজন ফুটবলার। লিওনেল মেসি, এডুয়ার্ডো সালভিও, এনজো পেরেজ, নিকোলাস ওতামেন্দি, নিকোলাস তালিয়াফিকো ও হাভিয়ের মাচেরানোই কেবল টিকে যাচ্ছেন নাইজেরিয়ার বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে।

    আর সমালোচিত গোলরক্ষন উইলি কাবালেরোর বদলে আসছেন ফ্রাংকো আরমানি, তা জানা গিয়েছিল আগেই। এছাড়া গ্যাব্রিয়েল মার্কাদো, মার্কোস আকুনা, সার্জিও আগুয়েরো ও ম্যাক্সি মেজা বাদ পড়তে যাচ্ছেন নাইজেরিয়ার বিপক্ষে শুরুর একাদশ থেকে। তাদের বদলে আসবেন মার্কস রোহো, এভার বানেগা, এঞ্জেল ডি মারিয়া ও গঞ্জালো হিগুয়েইন। আর এমন ম্যাচটিতে সুযোগ পাচ্ছেন না দিবালা।

    এক নজরে দেখে নিন নাইজেরিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনার ফাঁস হওয়া যে একাদশ নিয়ে মাঠ নামছে আর্জেন্টিনা:ফ্রাংকো আরমানি, এডুয়ার্ডো সালভিও, নিকোলাস ওতামেন্দি, মার্কস রোহো, নিকোলাস তালিয়াফিকো, এনজো পেরেজ, হাভিয়ের মাচেরানো, এভার বানেগা, এঞ্জেল ডি মারিয়া, গঞ্জাল হিগুয়েইন ও লিওনেল মেসি।

  • এই বিপদে মেসিদের পাশে এগিয়ে আসলেন ম্যারাডোনা

    এবারের বিশ্বকাপে খুব একটা ভালো পজিশনে নেই দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। নিজেদের প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র এবং দ্বিতীয় ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলে হেরে কঠিন সমীকরণে অবস্থান করছে মেসির দলটি।

    আগামী ২৬ জুন সেন্ট পিটার্সবার্গে নিজেদের গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপের শেষ ষোল নিশ্চিত করতে নাইজেরিয়াকে হারাতে হবে মেসিদের। এই বিপদে মেসিদের পাশে এগিয়ে আসলেন ম্যারাডোনা আর সেই ম্যাচে মেসিদের পাশে থেকে তাদের শক্তি যোগাতে চান আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপজয়ী কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনা। তাদের পাশে দাঁড়ানোর অনুমতি চান সর্বকালের অন্যতম সেরা এই ফুটবলার।

    তিনি বলেন, ‘যখনই আমি দেশের জার্সি শরীরে চড়াতাম, তখন জানপ্রাণ দিয়ে খেলতাম। সিমিওনে, রেদেনদো, রুগেরি, ক্যানিজিয়া, ফিলল, লুক, গ্যালেগোর মত কিংবদন্তিরাও তাই করতো।’

    তিনি আরো বলেন, ‘আমি চাই পুরো দলের সঙ্গে দেখা করতে, তাদের সঙ্গে কথা বলতে। যাতে আমি তাদের বোঝাতে পারি যে, জাতীয় দলের জার্সির মূল্যটা কি?’

  • টাইগারদের অপেক্ষায় ‘ভয়ঙ্কর’ অ্যান্টিগা

    ওয়েস্ট ইন্ডিজের সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যান ছিলেন স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস। একটা সময় ব্যাটিংয়ে অনেকটা শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। ১২১টি টেস্টে সাড়ে আট হাজার রানের অধিকারী এই কিংবদন্তী ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন ১৯৯১ সালে।

    উইন্ডিজ ক্রিকেটকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার পেছনে যুগান্তকারী অবদান রাখা এই ক্রিকেটারের সম্মানার্থেই ২০০৭ সালে অ্যান্টিগার নর্থ সাউথে নির্মিত হয় স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস ক্রিকেট স্টেডিয়ামটি।
    মূলত সেসময় ক্রিকেট বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে নির্মাণ করা হয়েছিলো স্টেডিয়ামটি। নির্মাণের পরের বছর অর্থাৎ ২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো এই মাঠে টেস্ট অনুষ্ঠিত হয় যেখানে মুখোমুখি হয়েছিলো সফরকারী অস্ট্রেলিয়া এবং স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

    উইন্ডিজদের এই মাঠেই আগামী মাসে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে খেলতে নামবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তবে দুঃখের বিষয় হচ্ছে এই মাঠে এর আগে বিশ্বকাপের ম্যাচ ছাড়া আর কোনো দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার অভিজ্ঞতা নেই টাইগারদের।

    আর ২০০৭ সালের বিশ্বকাপেও এই মাঠে খুব একটা ভালো স্মৃতি নেই বাংলাদেশ দলের। সেবার অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সুপার এইট পর্বের দুইটি ম্যাচ এই স্টেডিয়ামে খেলেছিলো হাবিবুল বাশারের দল।

    কিন্তু সেই দুই ম্যাচের মধ্যে একটিতেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেনি টাইগাররা। অজিদের বিপক্ষে ১০ উইকেট এবং কিউইদের কাছে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে পরাজয় বরণ করতে হয়েছিলো তাদের।

    সেই দুঃসহ স্মৃতি নিয়েই এবার অ্যান্টিগায় প্রথম টেস্টের লড়াইয়ে মাঠে নামতে হবে বাংলাদেশকে। যদিও ২০০৭ সালের বাংলাদেশের সাথে বর্তমান দলটির রয়েছে বিস্তর ফারাক। তবে এরপরেও টাইগারদের দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াবে সেখানকার কন্ডিশন এবং উইকেট।

    কেননা একে তো এর আগে সেখানে টেস্ট খেলেনি টাইগাররা তার ওপর অ্যান্টিগার উইকেট বাংলাদেশের মতো নয় একেবারেই। পরিসংখ্যান বলছে স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস ক্রিকেট স্টেডিয়ামের উইকেট বরাবরই ব্যাটিং স্বর্গ।

    এখন পর্যন্ত যে কয়টি টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে এখানে তার সবগুলোই বলা যায় হাই স্কোরিং ম্যাচ ছিলো। বাংলাদেশ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজের আগে এই স্টেডিয়ামে টেস্ট ম্যাচ হয়েছিলো ৫টি।

    ২০০৮ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথমবারের মতো এখানে খেলেছিলো স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সেই ম্যাচে প্রথমে ব্যাটিং করে ৭ উইকেটে ৪৭৯ রানের বিশাল সংগ্রহ দাঁড়া করেছিলো। জবাবে প্রথম ইনিংসে ৩৫২ রান তুলেছিলো উইন্ডিজ।

    এরপর ২০১২ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে সফরকারীদের করা ৩২২ রানের জবাবে প্রথম ইনিংসে ৫২২ রান সংগ্রহ করেছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২০১৫ সালেও বড় স্কোরের মুখ দেখেছিলো অ্যান্টিগা।

    সেবার স্বাগতিকদের মুখোমুখি হয়ে প্রথম ইনিংসে ৩৯৯ রান করতে সক্ষম হয় সফরকারী ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসেও ৩৩৩ রান করেছিলো তারা। কম যায়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজও। প্রথম এবং দ্বিতীয় ইনিংসে যথাক্রমে ২৯৫ এবং ৩৫০ রান করেছিলো তারা।

    সর্বশেষ বড় স্কোরের নমুনা দেখা গিয়েছে ২০১৬ সালে ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার ম্যাচে। সেই টেস্টে প্রথমে ব্যাট করে ৫৬৬ রানের পাহাড় নিয়ে ইনিংস ঘোষণা করেছিলো ভারত। সেই রান আর পার করতে পারেনি স্বাগতিকরা, বিধায় হারতে হয়েছে ইনিংস ব্যবধানে।

    সুতরাং সবদিক বিচার বিশ্লেষণ করে বলা যাচ্ছে যে এবারও ব্যাটিং সহায়ক উইকেটই অপেক্ষা করছে বাংলাদেশের জন্য। তবে এরপরেও কঠিন পরীক্ষাতেই পড়তে হবে টাইগারদের। কেননা সাধারণত দেশের মাটিতে স্পিন ট্র্যাকে খেলেই বেশি অভ্যস্ত ব্যাটসম্যানেরা।

    অপরদিকে অ্যান্টিগার উইকেট ব্যাটিংবান্ধব হলেও পেসাররা যে বাড়তি বাউন্স এবং গতি পাবেন তা অনেকটাই নিশ্চিত। আর এমন উইকেটে যে কেমার রোচ এবং শ্যানন গ্যাব্রিয়েলদের মতো গতি তারকারা কতটা ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারেন তা প্রমাণ হয়েছে এর আগেও।

    সেক্ষেত্রে সাফল্যের মুখ দেখতে হলে নিজেদের রণ কৌশল সাজানোর ক্ষেত্রে যথেষ্ট বিচক্ষণতার প্রমাণ দেখাতে হবে টাইগারদের। আদৌ কি সেটি দেখাতে পারবে বাংলাদেশ দল? এই প্রশ্নের উত্তর জানতে হলে অপেক্ষায় থাকতে হবে আরো কিছুদিন।

  • বার্তা বাজারে সাব-এডিটর পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

    আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তির সর্বাধিক ব্যবহারের মাধ্যমে অনলাইন সাংবাদিকতায় ক্যারিয়ার গড়ার দ্বার উন্মুক্ত করেছে বার্তা বাজার ডট কম । সাব-এডিটর পদে কিছুসংখ্যক সংবাদকর্মী নিয়োগ দেয়া হবে। সাংবাদিকতায় আগ্রহী হলে ৩০ জুন এর মধ্যে আবেদন করতে পারেন।

    পদের নাম: সাব-এডিটর ( খেলাধুলা, রাজনীতি এবং লাইফ স্টাইল )
    শিক্ষাগত যোগ্যতা: কোনো স্বনামধন্য পাবলিক বা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় হতে যে কোনো বিষয়ে স্নাতক/স্নাতকোত্তর ডিগ্রি। দক্ষতা থাকলে অধ্যয়নরত থাকলেও হবে।

    দক্ষতা: ক্রিয়েটিভ ইউনিক নিউজ লেখা এবং চাপের মধ্যে কাজ করার অভ্যাস থাকতে হবে। বাংলা টাইপে দক্ষতা আবশ্যক।
    অভিজ্ঞতা: ০১ বছর
    কাজের ধরনঃ ফুল টাইম

    প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে। সেখান থেকে উত্তীর্ণদের নিয়োগ দেওয়া হবে।

    আবেদন প্রক্রিয়া
    আগ্রহী প্রার্থীরা জীবনবৃত্তান্ত ও সদ্য তোলা ছবি পাঠাতে পারবেন  bartabazarbd@gmail.com ইমেইল ঠিকানায়।
    বেতনঃ আলোচনা সাপেক্ষে

     

    যোগাযোগঃ
    বার্তা বাজার
    ১৩৭১ ,পূর্ব শেওড়াপাড়া, মিরপুর, ঢাকা- ১২১৬, বাংলাদেশ ।
    মোবাইল : +880১৭৭১-৬৬৬০০০
    ই-মেইল : bartabazarbd@gmail.com

  • ‘ছেলের অন্তঃসত্বা বউ’কে বিয়ে করে ঘর বাঁধলেন শ্বশুর’!

    নিজের স্ত্রী সন্তান রেখে ছেলের অন্তঃসত্বা বউকে ভাগিয়ে নিয়ে বিয়ে করলেন বাবর আলী নামে এক ব্যক্তি। ঘটনাটি ঘটেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার ধাইনগর ইউনিয়নে। অভিযোগ উঠেছে, এ অমানবিক ঘটনায় সহায়তা করেছেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তাবারিয়া চৌধুরী।

    জানাগছে, মহেষপুর গ্রামের বাবর ছেলে ইউসুফ আলীর সঙ্গে একই ইউনিয়ের জাবড়ি কাজিপাড়া গ্রামের মৃত জোবদুল হক জোবুর মেয়ে সাথী খাতুনের প্রায় তিন বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর একই বাড়ীতে সবাই বসবাস করত। এরপর পূত্রবধূর দিকে কু-নজর পড়ে শ্বশুর বাবর আলীর। প্রায় দুই মাস আগে পূত্রবধূকে নিয়ে আত্মগোপনে চলে যায় শশুর বাবর আলী।

    খবর পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান তাবারিয়া চৌধূরি লোক পাঠিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার বারঘোরিয়া হতে তাদের আটক করে ধাইনগর ইউপি কার্যালয়ে আটকিয়ে রাখে। পরে গত ২২ শে জুন স্থানীয়ভাবে শালিস বসানো হয়।

    শালিসে স্ত্রী তিন সন্তানের জননী নাসীমা বেগমকে দিয়ে বাবর আলীকে তালাক দেয়া হয়। এরপর ছেলে ইউসুফ আলীকে স্ত্রী সাথী খাতুনকে তালাক দিতে বাধ্য করা হয়। এরপর পরই দেড় লাখ টাকা মোহরে পূত্রবধূ সাথীর সঙ্গে শ্বশুর বাবর আলীর বিয়ে পড়ানো হয়। তালাক এবং বিয়ের কাজটি সম্পূর্ণ করেন একই ইউনিয়ের গ্রাম পুলিশ (চৌকিদার) আনারুল ইসলাম। এরপর বাবর তার নববধূকে নিয়ে অবস্থান করছেন মহেষপুর গ্রামের একটি ভাড়া বাড়ীতে। তারপর হতে ছেলে ইউসুফ আলী তার মাকে নিয়ে মামাদের বাড়ীতেই অবস্থান করছেন। ঘটনার পর এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

    যার সত্যতা মিলেছে বাবরের স্ত্রী ও ইউসুফের মা নাসিমা বেগমের কথায়। নাসিমা বেগম অভিযোগ করে এই প্রতিবেদককে বলেন, শুক্রবার ৭/৮জন মানুষের সামনে চেয়ারম্যান সাহেব তার অফিস ঘরে প্রথমে আমাকে তালাক দিতে বাধ্য করে আমার স্বামী বাবর আলীকে। তারপরে ছেলে ইউসুফ আলীকে দিয়ে তালাক দেয়ায় তার স্ত্রী সাথী খাতুনকে। তালাকের পরেই ছেলের বউ (ইউসিুফের) স্ত্রীকে বিয়ে করেন বাবর আলী।

    তিনি আরো অভিযোগ করে বলেন, আমি যেন কোন ধরনের সুযোগ সুবিধা না পায় তার জন্য কৌশলে আমাকে দিয়ে স্বামী বাবর আলীকে তালাক দেয়া হয়েছে।

    এ বিষয়ে জানতে চাইলে ধাইনগর ইউপি চেয়ারম্যান তাবারিয়া চৌধুরী জানান, প্রায় ৬ মাসের অন্তঃসত্বা রয়েছে সাথী খাতুন। তার গর্ভের সন্তান শ্বশুর বাবরের বলে শালিসে উপস্থিত সবাইকে জানায় সাথী।

    তিনি আরও জানান, প্রায় ৬ মাস আগে বাবরের স্ত্রী তাকে তালাক দেয় এবং দুই মাস আগে ছেলে ইউসুফ আলী বউ সাথীকে তালাক দেয়। নিয়ম মোতাবেক তালাক হওয়ায় মানবিক কারনে তিন কাঠা মাটি ও দেড় লাখ টাকা মোহর ধার্য করে বাবর ও সাথীর বিয়ে পড়নো হয়। তবে স্থানীয় কাজি মো.সেতাউর রহমান জানান, প্রায় একমাস আগে ইউসুফ তার মাকে সঙ্গে নিয়ে তালাকের জন্য আমার অফিসে আসে। বিষয়টি জটিল দেখে আমি সে পথে এগুতে পারিনি।

    চাঁপাইনবাবগঞ্জ নিকাহ রেজিস্টার সমিতির সাধারন সম্পাদক কাজি আবদুল বারী জানান, তাৎক্ষনিক তালাক দিয়ে তথাকথিত বিয়ে পড়ানো হয়েছে। যা ইসলামী শরীয়াহ কোনভাবেই সমর্থন করেনা।

    এবিষয়ে শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.শফিকুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি লোকমুখে শুনেছি। এঘটনায় কেউ অভিযোগ করেনি। যদি কেউ অপরাধ করে থাকে তবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  • নেইমারের দত্তক নেওয়া শিশুটির আসল পরিচয় কী?

    শুধু ব্রাজিল নয়, তার দিকে তাকিয়ে গোটা ফুটবল বিশ্ব। গত বিশ্বকাপের মাঝ পথে তার চোট কাঁদিয়েছিল সবাইকে। এ বার প্রথম থেকেই ছন্দে রয়েছেন ব্রাজিলের সুপারস্টার। কোস্টারিকার বিরুদ্ধে দুরন্ত গোল করে দলকে জিতিয়ে নিজের জাত বুঝিয়ে দিয়েছেন। সেই নেইমার সম্পর্কে কিছু অজানা তথ্যে এ বার একটু চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক।

    ১. বাবা নেইমার ডি’সিলভা ছিলেন বড় মাপের ফুটবলার।

    ২. সাও পাওলোর বিরুদ্ধে ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন নেইমার। মাত্র ১১ বছর বয়সে সুযোগ পান জুনিয়র দলে।

    ৩. মাত্র ১৪ বছর বয়সে উড়ে গিয়েছিলেন স্পেনের রিয়াল মাদ্রিদে। কিন্তু সেই ক্লাবে যোগ দেওয়ার আগেই তাকে দলে নেয় স্যান্তোস।

    ৪. নেইমারের বয়স তখন ১৯। দত্তক নিয়েছিলেন একটি শিশুকে। নাম দাভি লুকা। যদিও শিশুটির মায়ের নাম কোনও দিনই প্রকাশ্যে আনেননি নেইমার। শোনা যায়, ছেলেটি নেইমারের সাবেক বান্ধবী ক্যারেলিনা দানতাসের।

    ৫. ‘স্পোর্টস প্রো‘ ম্যাগাজিনের হিসেবে ২০১২ এবং ২০১৩ সালে সব থেকে দামি ক্রীড়াবিদের স্বীকৃতি পান নেইমার। পিছনে ফেলেন উসাইন বোল্ট, লিওনেল মেসি, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোদের।

    ৬. বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তি শেষে যোগ দেন পিএসজিতে। ২০২২ সাল পর্যন্ত এই ক্লাবেই খেলার কথা তার। বার্ষিক চুক্তি প্রায় ৩৬০ কোটি টাকার। এই মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলারের নেইমারই।

    ৭. ব্রাজিলীয় পপ মিউজিকের প্রচারেও নেইমারের ভূমিকা বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। তার বেশ কয়েকটি মিউজিক ভিডিও রয়েছে।

  • ইউটিউব কাঁপালো ‘ব্রাজিল নাকি আর্জেন্টিনা’ (ভিডিও)

    ফুটবলের উন্মাদনায় নতুন মাত্রা যোগ করলেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী প্রতীক হাসান। বিশ্বকাপ ফুটবলকে কেন্দ্র করে ‘ব্রাজিল নাকি আর্জেন্টিনা’ শিরোনামের নতুন একটি গান নিয়ে ভক্তদের সামনে হাজির হলেন এ শিল্পী। রসাত্মক গানটি এরই মধ্যে ঝড় তুলেছে ইউটিউবে। গত ২২ জুন গানটি প্রকাশিত হয় ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের ইউটিউব চ্যানেলে। গানটি প্রকাশের দুই দিনের মাথায়ই ৮ লাখ ভিউয়ের মাইলফলক স্পর্শ করেছে।

    অনুরূপ আইচের কথায় গানটির সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন জুয়েল মোর্শেদ। এটির মিউজিক ভিডিও নির্মাণ করেছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা সৈকত নাসির। গানে শিল্পী প্রতীক হাসান, মডেল আইরিন আফরোজসহ আরও অনেকে।

    গানটি প্রতীক হাসান বলেন-গানটির কথা গুলো খুবই মজার। প্রেমিকের ঔৎসুক মন জানতে ব্যকুল তার প্রেমিকা কোন দলের সাপোর্টার। তার মন পেতে সে দরকার হলে হানিমুনে রাশিয়া যাবে। তাদের প্রেম, খুনসুটি, ঝগড়াঝাটি পুরো বিষয়টাই ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনার খেলার মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে।

    অল্প সময়ে গানের ৮ লাখ ভিউ নিয়ে উচ্ছ্বসিত প্রতীক বলেন, আমাদের এই কষ্ট সার্থক হয়েছে, কেননা গানটি প্রকাশের পর থেকে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। ইউটিউব ছাড়াও গানটি শুনতে পাওয়া যাচ্ছে জিপি মিউজিক এবং বাংলালিংক ভাইবে।

  • আমি বিশ্বকাপ না জিতে অবসর নিতে চাই না: মেসি

    এবারের বিশ্বকাপে খুব একটা ভালো পজিশনে নেই দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। নিজেদের প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র এবং দ্বিতীয় ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলে হেরে কঠিন সমীকরণে অবস্থান করছে মেসির দলটি।

    হয়তো এবারের বিশ্বকাপটি শেষ বিশ্বকাপ হতে পারে মেসির জন্য। আজ রোববারই ৩০ পেরিয়ে ৩১ বছরে পা দিয়েছেন এই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। দ্বিতীয় রাউন্ডে তাদের জায়গা করে নেওয়া নিয়ে অনেক শঙ্কা থাকলেও এবারের আসরের ফাইনাল খেলতে চান মেসি।

    নিজের জন্মদিনে বিশ্বকাপ স্বপ্ন নিয়ে এমনটিই জানিয়েছেন মেসি। একই সঙ্গে এবার না হলে কাতার বিশ্বকাপ দলের হয়ে অংশ নেওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা এই ফুটবলার। আর বিশ্বকাপ না জিতে অবসর নিতে চান না মেসি।

    তিনি বলেন, ‘আমি বিশ্বকাপ না জিতে অবসর নিতে চাই না। এই কথা থেকেই অনেক কিছু বোঝা যায়। আর্জেন্টিনার জন্য বিশ্বকাপ কেমন তা এটা থেকেই বুঝে নেওয়ার কথা। আমার জন্যও তাই। বিশ্বকাপ জেতার স্বপ্নটা আমার মধ্যে সবসময়ই ছিল। শিরোপাটা জয়ের অনুভূতি কেমন আমি তা ছুঁয়ে দেখতে চাই।’

    তিনি আরো বলেন, ‘আমি গুরুত্বপূর্ণ অনেক শিরোপা জিতেছি। কিন্তু দেশের জন্য বিশ্বকাপ না জিতে অবসর নিতে চাই না।’

  • শারীরিক সম্পর্কে সন্তুষ্টি মিলে ঝাল খাবারে!

    শারীরিক সম্পর্কে সন্তুষ্টি পেতে অনেকেই নানা ওষুধ সেবন করেন। তবে বেশিরভাগ সময় এর প্রতিক্রিয়ায় শরীরে নানা রোগ দেখা দেয়। এর বাইরে, অনেকেই হয়তো জানেন না ঝাল খাবার খেলে পুরুষের শরীরে প্রয়োজনীয় হরমোন নিঃসরণ শুরু হয়, যা মিলনের সময় তাদের আবেগ ও ক্ষমতা কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেয়।

    সম্প্রতি ফ্রান্সের গ্রেনেবাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় দেখা গেছে, মিলনের আগে প্রিয়জনকে যত বেশি সুস্বাদু আর ঝাল খাবার খাওয়ানো যাবে, ততই তার ইচ্ছা প্রবল হয়। কারণ ঝাল খাবার খেলে পুরুষের শরীর থেকে টেস্টোস্টেরন নামক হরমোন নির্গত হয়, যা মিলনে সন্তুষ্টি বাড়ায়।

    গবেষণায় সমীক্ষকরা ১৮-৪৪ বছরের ১১৪ জন পুরুষকে নিয়ে একটি গবেষণা করেন। প্রথমে তাদের ঝাল মরিচের সস আর লবন দিয়ে আলু খেতে দেওয়া হয়েছিল। আর তার পরের ঘটনাটাই রীতিমতো চাঞ্চল্যকর।

    যারা খাওয়ার সময় প্লেটে বেশি করে স্পাইসি সস নিয়েছেন, খাওয়ার পর পরই তাদের স্যালাইভা স্যাম্পেল পরীক্ষা করে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা অপেক্ষাকৃত বেশি দেখা যায়।

    গবেষক লরেন্ট বেগের মতে, ঝাল খাবারে টেস্টোস্টেরন হরমোনের নিঃসরণ বাড়ে। তবে ঠিক কেন বাড়ে বা কীভাবে বাড়ে, সে সম্পর্কে এখনও পুরো তথ্য পাওয়া যায়নি। আশা করা যাচ্ছে,খুব দ্রুতই পুরো প্রক্রিয়াটি বিস্তারিত আলোচনার মাধ্যমে উঠে আসবে।

    লরেন্ট আরও জানান, টেস্টোস্টেরন হরমোনের মাত্রা কমে গেলে, শরীরে ক্লান্তি চলে আসে। ফলে কমে যায় মিলনের ইচ্ছাও। তবে সমসময়েই মিলনের আগে প্রচুর পরিমাণে ঝাল খাবার খেতে হবে, এমন কোনো বাধ্যবাধকতা নেই।

  • বেলিড্যান্সে আগুন ঝরালেন উর্বশী! (ভিডিও)

    বলিউডের অন্যতম আবেদনময়ী অভিনেত্রী উর্বশী রাউতেলা। শরীরী আবেদন ছড়িয়ে দর্শকের বুকে কাঁপন ধরাতে তিনি বেশ পটু। সর্বশেষ ‘হেট স্টোরি ৪’ ছবিতে তিনি খোলামেলা দৃশ্যে অভিনয় করে ব্যাপক আলোচিত হয়েছেন।

    এবার সিনেমার পর্দায় নয়, টুইটারেই ঝড় তুললেন উর্বশী। একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন তিনি। যেখানে উর্বশীকে বেলিড্যান্স করতে দেখা গেছে। কালো টপ আর ধূসর রঙের স্কিন প্যান্ট পরে তিনি নেচেছেন তার কোরিওগ্রাফারের সঙ্গে।

    এই ড্যান্সের মাধ্যমেই মাত করেছেন গ্ল্যামার গার্ল। পোস্ট করার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে গেছে। তার ভক্তরা নিজ নিজ ওয়ালে সেটা শেয়ার করছেন।

    ভিডইওটি শেয়ারের সময় উর্বশী ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘আসো বেলিড্যান্স করি। তোমাদের সঙ্গীকেও যুক্ত করো’।

    দেখুন উর্বশীর বেলিড্যান্সের ভিডিওটি: